×
  • ঢাকা
  • রবিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮
Active News 24

মাচা পদ্ধতিতে টমেটো চাষে সফলতা


বি এম বাবলুর রহমান | সাতক্ষীরা প্রতিনিধি প্রকাশিত: অক্টোবর ৭, ২০২১, ১২:৫২ পিএম মাচা পদ্ধতিতে টমেটো চাষে সফলতা

কৃষি নির্ভর সাতক্ষীরা তালা উপজেলায় গ্রীষ্মকালীন হাইব্রিড জাতের টমেটো মাচায় চাষ করে লাভজনক হওয়ায় কৃষকরা বাণিজ্যিকভাবে এ চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছেন। এ বছর উপজেলায় অসময়ে টমেটো চাষে লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করেছে।


তালা উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৮ হেক্টর জমিতে গ্রীষ্মকালীন টমেটো চাষে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল। অন্য বছরের তুলনায় এবার নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে এই ফসল চাষ হয়েছে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, তালা উপজেলার সদরে , উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার নগরঘাটা, শাগদাহ, কুমিরা,ইসলাম কাটি, এলাকায় ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে অসময়ে টমেটো চাষ । সল্প খরচে চাষ করে চড়া দামে বিক্রি করে লাভবান হচ্ছে উপজেলা কৃষকেরা।

এছাড়া বাজারে অসময়ের এ টমেটোর চাহিদা বেশি থাকায় কৃষকরা দাম পাচ্ছেন ভালো, বলছে একাধিক সবজি বিক্রেতা। সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলায় আবহাওয়া অনুকূল ও মাটি উর্বর হওয়ায় টমেটো চাষ ভালো হচ্ছে। এ জাতের টমেটো গাছ লাগানোর জুন মাসের প্রথমদিকে ২-৩ মাসের মধ্যে ফল ধরতে শুরু করে। ৪-৫ মাস পর্যন্ত এ টমেটো সংগ্রহ করা যায়।

প্রথম বছর খরচ বেশি হলেও পরবর্তী বছর থেকে খরচ কম হয়। তালা উপজেলার কৃষকরা সাধারণ ইস্পাহানি জাতের টমেটো চাষ করেছেন। কিছু কিছু ক্ষেত্রে বারী জাতের টমেটো চাষ দেখা গেছে।ইস্পাহানি জাতের টমেটো চাষের আগে বীজতলা থেকে চারা তৈরি করতে হয়। জমি ভালোভাবে চাষ দিয়ে তৈরি করে নিতে হয়। জমিতে পলিথিন বিছিয়ে ছোট ছিদ্র করে চারা লাগাতে হয়। ফুল আসার পর পাটখড়ি, বাঁশের কঞ্চি, দড়ি ও তার দিয়ে মাচা তৈরি করতে হয়। গাছ বড় হলে মাচার ওপর তুলে দিতে হয়। ফলগুলো মাচায় ঝুলে থাকে। মাটিতে ঠেকে থাকলে দ্রুত পঁচে যায়। টমেটো গাছ লাগানোর পর নিয়মিত পরিচর্যা করতে হয়।

উপজেলার কুমিরা গ্রামের হাফিজুর রহমান জানান, তিনি ১ বিঘা জমিতে গ্রীষ্মকালীন টমেটো চাষ করেছেন। তিনি আরো জানান, এ জাতের টমেটো চাষ লাভজনক। গ্রামের সবাই কম-বেশি চাষ করেছে। গাছে যথেষ্ট ফল ধরেছে। 

মাচায় টমেটো চাষ করলে নষ্ট কম হয়। কারণ, মাটিতে টমেটো লেগে থাকলে পঁচে যায় ও ফলন কম হয়। তিনি গত তিন বছর ধরে এই ফসল চাষ করে আসছেন। প্রথম বছরে এক বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করতে ১লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে। এবছর ৪০ হাজার টাকার মতো খরচ হয়েছে। বাজার মূল্য স্বাভাবিক থাকলে বিঘা প্রতি ২ লক্ষ টাকা বিক্রি হবে বলে তিনি আশাবাদী। 

একই এলাকার কৃষক আলমগীর হোসেন, আমিনুল ইসলাম, আসাদুল ইসলাম জানান, টমেটোর দাম গত বছরের তুলনায় ভালো। এখন পর্যন্ত ৫০-৬০ মণ টমেটো বিক্রি করেছি। এখনপ্রতি কেজি দাম ৫০-৬০ টাকা।

তালা উপ কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা হাজিরা খাতুন জানান, তালায় গ্রীষ্মকালীন জাতের টমেটো চাষ হচ্ছে। এক সময় এ জাতের টমেটো কৃষকরা চাষ করতো না। তিনি আরো জানান, প্রথম বছর চাষে খরচ বেশি হলেও লাভ বেশি হয় পরের বছর থেকে। এ জাতের টমেটো খেতে সুস্বাদু,বর্তমানে যে ফলন হচ্ছে যথাযথভাবে আমাদের পরামর্শ অনুযায়ী চাষ করলে ফলন আরও বেশি হবে। এ ব্যাপারে কৃষকদের সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে।

 


 

ফাহিম / একটিভ নিউজ