×
  • ঢাকা
  • রবিবার, ০৩ মার্চ, ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০
Active News 24

কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ‍‍`র ৬৫ তম জন্মদিন আজ


মনির হোসেন | মোংলা প্রতিনিধি প্রকাশিত: অক্টোবর ১৬, ২০২১, ০১:১৬ পিএম কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ‍‍`র ৬৫ তম জন্মদিন আজ

তারুণ্য ও দ্রোহের কবি হিসেবে খ্যাত রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহ সত্তর ও আঁশির দশকে তার আধুনিক লেখনি ও উপস্থাপনার গুণে তারুণ্যের প্রতীক হয়ে ওঠেন। এদেশের তরুণ প্রজন্ম আজও তার কাব্যের মধ্যে দ্রোহের এবং মুক্তির বাণী খুঁজে পায়। তার লেখা ও সুরের গান আজও তরুণদের আড্ডার প্রিয় উপজীব্য।


এই বাঙালি কবি রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ৬৫ তম জন্মদিন আজ। ১৯৫৬ সালের এই দিনে তিনি  জন্মগ্রহণ করেন। ঢাকা ওয়েস্ট অ্যান্ড হাইস্কুল থেকে ১৯৭৪ সালে এসএসসি এবং ঢাকা কলেজ থেকে ১৯৭৬ সালে এইচএসসি পাস করেন কবি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ থেকে ১৯৮০ সালে বিএ (সম্মান) এবং ১৯৮৩ সালে এমএ ডিগ্রি লাভ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন সময়ে সক্রিয়ভাবে তিনি ছাত্র ইউনিয়ন সাথে যুক্ত ছিলেন। এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম অংশীদার। আর এই আন্দোলনের খাতিরেই গড়ে তোলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট।

রুদ্রকে অনেকে ৭০ দশকের কবি বলেন। ৭৯ সালে বের হয় প্রথম বই “উপদ্রুত উপকূলে”। তারপর একে একে ৭টি কবিতার বই প্রকাশিত হয়। আর মৃত্যুর পর বের হয় নাট্যকাব্য “বিষ বিরিক্ষের বীজ”। যাবতীয় অসাম্য, শোষণ ও ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে অনমনীয় অবস্থান অকালপ্রয়াত এই কবিকে পরিণত করেছে ‘তারুণ্যের দীপ্ত প্রতীকে।


১৯৯১ সালের ২১ জুন মাত্র ৩৪ বছর বয়সে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মাত্র ৩৪ বছরের স্বল্পায়ু জীবনে তিনি সাতটি কাব্যগ্রন্থ ছাড়াও গল্প, কাব্যনাট্য এবং ‘ভালো আছি ভালো থেকো’সহ অর্ধশতাধিক গান রচনা ও সুরারোপ করেছেন। 

তিনি সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট এবং জাতীয় কবিতা পরিষদ গঠনের অন্যতম উদ্যোক্তা ছিলেন। ১৯৮০ সালে তিনি ‘মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার’ লাভ করেন। কবির জন্মদিন স্মরণে রুদ্র স্মৃতি সংসদ তার গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার মিঠাখালিতে কবির জন্মদিন পালন উপলক্ষে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট এবং রুদ্র স্মৃতি সংসদ ও মোংলা সাহিত্য পরিষদের আয়োজনে ১৬ অক্টোবর সকালে র‍্যালী সহকারে কবির সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন এবং সন্ধ্যায় মোংলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে রুদ্র স্মরনানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

 

 

ফাহিম / একটিভ নিউজ