• ঢাকা
  • বুধবার, ০৩ মার্চ, ২০২১, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭
Active News 24

বাসে যাত্রী সেজে ডাকাতি, নারী ডাকাত গ্রেফতার-১


একটিভ নিউজ: | ডেস্ক: প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১, ০৫:৪৮ পিএম বাসে যাত্রী সেজে ডাকাতি, নারী ডাকাত গ্রেফতার-১
সংগৃহীত ছবি

ঢাকা হইতে ঠাকুরগাঁয়েরও উদ্দেশে ছেড়ে আসা রোজিনা এন্টারপ্রাইজের গাড়িতে যাত্রীবেশে ডাকাতি করার সময় বিরামপুর পুলিশ, নাজমুন নাহার রিপা (৩০) নামে এক নারীকে ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে। 

সোমবার (৪ঠা জানুয়ারি) বিকেল ৫টায় দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের নবাবগঞ্জ মতিহারা ব্রিজের কাছে ওই নারীকে আটক করা হয়। 

মহিলা ডাকাত রোজিনা আকতার রিপা দিনাজপুর ঘোড়াঘাট উপজেলা বাসিন্দা। গ্রেফতারের সময় ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ৬টি চাকু উদ্ধার হয়।

এ ঘটনায় আহতরা হলেন- রানিশংকৈল উপজেলা জসিম উদ্দিনের ছেলে অলিন, ঠাকুর গাঁও জেলার আব্দুল গফফারের ছেলে জুয়েল রানা, নবাবগঞ্জ উপজেলার জয়নাল আবেদিনের ছেলে জামাল হোসেন।

আরো পড়ুন: স্বামীর করোনা স্ত্রী বাপের বাড়ি চলে যাওয়ায় সুস্থ হয়ে বউ তালাক!

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিথুন সরকার জানিয়েছেন, রোববার (৩ জানুয়ারি) রাতে ঢাকার যাত্রাবাড়ি থেকে ঢাকা মেট্রো-ব ১৪৫০২১ নাম্বারের রোজিনা পরিবহন যাত্রী নিয়ে ঠাকুরগাঁও রানিশংকৈলে যাচ্ছিল। যাত্রীবেশে ওই নারীসহ ৮ জন বাসে ওঠে। পথে গোবিন্দগঞ্জ থেকে দিনাজপুর আসার সময় তারা যাত্রীদের জিম্মি করে ডাকাতি শুরু করে। ডাকাত দল ড্রাইভারকে উঠিয়ে দিয়ে নিজেদের আয়ত্বে গাড়িটি নিয়ে নেন। পথে কাটাবাড়ি এলাকায় গাড়ির সহকারী লাফ দিয়ে ৯৯৯ ফোন করে বিষয়টি অবগত করেন।

আরো পড়ন: টানা ১১ বছর প্রেমের পর নিজের বোনকে বিয়ে

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিথুন সরকার বলেন, ওই ব্যক্তির ফোন পেয়ে ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ গাড়িটির পিছু নেয়। এদিকে বিরামপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার নবাবগঞ্জ থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের দলার দরগা বাজারে গাছের গুঁড়ি দিয়ে রাস্তা অবরোধ করে। পরে গাড়িটি মতিহারা বাজারের অদূরেই মতিহারা ব্রিজের পাশে রেখে ডাকাত দল পালিয়ে যায়। এসময় ধাওয়া করে নারী এক ডাকাতকে আটক করা হয়। 

পরে ওই নারী এবং গাড়ি থেকে পাঁচটি ধারালো চাকু ও পাশেই ক্ষেত থেকে একটি রক্তাক্ত চাকু উদ্ধার করা হয়। আটক নারীটিকে নবাবগঞ্জ থানায় নেওয়া হয়েছে।

সার্কেল এএসপি বলেছেন, আটক নারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পালিয়ে যাওয়া ডাকাত দলকে আটকে চেষ্টাও অব্যাহত রয়েছে।