×
  • ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ, ২০২১, ২৪ ফাল্গুন ১৪২৭
Active News 24

ভোলায় যৌতুকের দায়ে প্রাণ গেল গৃহবধূর


একটিভ নিউজ | ডেস্ক: প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১, ০৫:৪৮ পিএম ভোলায় যৌতুকের দায়ে প্রাণ গেল গৃহবধূর
প্রতীকী ছবি

ভোলায় যৌতুকের কারণে প্রাণ গেল আকলিমা বেগম (২৭) নামের এক গৃহবধূর। এ গৃহবধূ হত্যার অভিযোগ উঠেছে নিহতের স্বামী, শ্বশুড়, শাশ্বড়িসহ পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে।

তজুমদ্দিন উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের নতুন হাটবাজার এলাকার মো. ফরহাদের স্ত্রী  ও বোরহানউদ্দিন উপজেলার পক্ষিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মো. আজিজল হকের মেয়ে নিহত আকলিমা বেগম।

আজ বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকালে নিহতের স্বামীর ঘর থেকে গলায় দড়ি বাঁধা অবস্থায় মেঝেতে পড়ে থাকা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতে আকলিমা বাবা আজিজল জানান, ৯ বছর আগে তার মেয়ের সঙ্গে ওই এলাকার ফরহাদের বিয়ে হয়। আকলিমা দুই সন্তানের জননী। বিয়ের পর থেকে ফরহাদ যৌতুকের জন্য আকলিমাকে মারধর করতো। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার স্থানীয়ভাবে আকলিমার শ্বশুড়বাড়ি সালিশ-মিমাংশায় বসলেও নির্যাতন বন্ধ হয়নি।

এ ঘটনার প্রেক্ষিতে গত মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) আকলিমাকে আবারও প্রচুর মারধর করে ফরহাদ। এ নিয়ে বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয়ভাবে সালিস হয়। ওই রাতেই আকলিমাকে ফরহাদ ও তার বাবা বাবুল, মা সাহানারাসহ তাকে হত্যা করে গলায় দড়ি লাগিয়ে লাশ ঘরের ভিতরে রেখে পালিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

আরো পড়ুন: নারায়ণগঞ্জে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ধর্ষণ

শম্ভুপুর ইউনিয়নের সদস্য বাবুল জানান, নিহত গৃহবধূকে তার স্বামীসহ পরিবারের সদস্যরা নির্যাতন করতো। গতকালও নির্যাতনের এ ঘটনায় তারা সালিস করেন। সকালে শুনলাম ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।

বাবুল আরো জানান, নিহতের স্বামী একজন বখাটে। সে কোনো কাজ করে না। তার বিরুদ্ধে এলাকায় অনেক অভিযোগ রয়েছে।

আরো পড়ুন: নওগাঁতে আপন বড় বোনেকে শাবল দিয়ে খুন করলো ছোট ভাই

এ ঘটয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে তজুমদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম জিয়াউল হক বলেন, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। নিহতের স্বামী, শ্বশুড়, শ্বাশড়িসহ পরিবারের সদস্যরা পলাতক রয়েছেন।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরো জানান, এটি হত্যা না কি আত্মহত্যা তা এখনো নিশ্চিত নয়।

ডেস্ক / একটিভ নিউজ