×
  • ঢাকা
  • সোমবার, ১৭ মে, ২০২১, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

ধামইরহাটে সড়কের জায়গায় অবৈধ স্থাপনার অভিযোগ 


মাসুদ সরকার | ধামইরহাট নওগাঁ প্রতিনিধি       প্রকাশিত: এপ্রিল ১৪, ২০২১, ০৬:০৫ পিএম ধামইরহাটে সড়কের জায়গায় অবৈধ স্থাপনার অভিযোগ 

নওগাঁর ধামইরহাটে দিনের পর দিন সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের জায়গা দখল করে অবৈধ ভাবে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। অসাধু চক্রের এসব সরকারি জায়গা দখল করার ফলে থাকছেনা পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থ।

ফলে আকাশের সামান্য বৃষ্টিতে নামলেই রাস্তায় হাটু পানি জমে গিয়ে ভোগান্তির শিকার হতে হয় জনসাধারণদের। (সওজ) জায়গা দখল করে এভাবে অবৈধ স্থাপনা তৈরীর করা হলেও নেয়া হয়নি কোন পদক্ষেপ। এ নিয়ে এলাকাবাসীদের মধ্যে দেখা গেছে এক প্রকার চাপা ক্ষোভ ।

আরো পড়ন: ব্রহ্মপুত্র নদে গোসলে নেমে প্রাণ গেল তিন শিশুর

জানা গেছে, সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গা দখল করার সর্বশেষ ঘটনা ঘটেছে উপজেলার ধামইরহাট-নওগাঁ আঞ্চলিত মহাসড়কের ফতেপুর বাজারে। 

একটি মহল ফতেপুর বাজারে সড়কের জায়গা দখল করে টিন সেডের ঘর নির্মাণ কাজ দীর্ঘদিন ধরে করছে। কতিপয় ব্যক্তি সড়ক বিভাগের জায়গা ভরাট করে সেখানে গড়ে তুলেছেন টিনশেডর অবৈধ স্থাপনা। প্রতিটি ঘরের জন্য জামানত হিসেবে দোকান বরাদ্ধ দেয়ার কথা বলে মোটা অংকের টাকা নিয়ে এসব ঘর তৈরীর করছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ফতেপুর বাজার এলাকার রাস্তার পূর্ব পার্শে ১০ মিটার এবং রাস্তার পশ্চিম পার্শে ৩০ মিটার পর্যন্ত সরকারি যায়গার দখল করে স্থাপনা তৈরী করেছে ওই এলাকার মৃত আব্দুল কুদ্দুস মন্ডলের ছেলে মোফাজ্জল হোসেন, মৃত খিদির শাহ এর ছেলে নাজমুল হক এবং মাসুদ নামের কতিপয় ভুমি দস্যুরা। 

ঢেউটিন দিয়ে ঘর নির্মাণ করে ওই সব ঘর অন্যের নিকট ভাড়া দিয়েছেন। প্রতি মাসে দোকানীদের নিকট হতে বড় মাপের টাকা ভাড়া তোলেন অবৈধ ভাবে ওসব ঘর নির্মান কারিরা। 

আরো পড়ন: ময়মনসিংহে লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে প্রশাসন

এ ব্যপারে অভিযুক্ত ব্যক্তি মো. মাসুদ জানান, আমার জোতভুক্ত জমিতে আমি ঘর নির্মাণ করেছি কিছুটা সওজের যায়গা পেয়েছে কোন বাঁধা আসলে যায়গা ছেড়ে দিব বলে স্বীকার করেন তিনি।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, সড়কের পাশে খাল মাটি কেটে ভরাট করে  অবৈধ স্থাপনা তৈরী করা হয়েছে ফলে বর্ষা মৌসুমে রাস্তার পানি নিয়ে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। দ্রুত এসব থেকে প্রতিকার চান এলাকাবাসী। 

এ বিষয়ে নওগাঁ জেলা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাজেদুর রহমান জানান, অবৈধ স্থাপনা দখল করে যারা ঘর নির্মাণ করেছে তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তুষার / একটিভ নিউজ