×
  • ঢাকা
  • সোমবার, ১৭ মে, ২০২১, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

প্রতিবেশীর ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী, বিয়ে দিয়ে মীমাংসার চেষ্টা


একটিভ নিউজ প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০২১, ০৮:৪৯ পিএম প্রতিবেশীর ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী, বিয়ে দিয়ে মীমাংসার চেষ্টা
প্রতীকী ছবি

নেত্রকোনার মদন উপজেলায় প্রতিবেশীর ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে এক কিশোরী (১৩)। তবে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চলছে। এ ঘটনার ন্যায়বিচার চেয়েছেন কিশোরীর মা।

উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

আজিজুল (৪৫) অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম । আজিজুল একই ইউনিয়নের আছেন আলীর ছেলে।ধর্ষণের শিকার কিশোরীর মা সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, আজিজুলের স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। তিনি আমার কিশোরী মেয়েকে জোরপূর্বক তার ঘরে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন। এখন আমার মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা। সালিশ করে এখন এ ঘটনার মীমাংসার চেষ্টা চলছে। আমার মেয়ের সঙ্গে কেন এমন করা হলো, আমি এর ন্যায়বিচার চাই।’

আরো পড়ুন: ময়মনসিংহ জেলা পুলিশের ৫ টাকার ইফতার অব্যাহত

ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান দেওয়ান মসরুম ইয়ার চৌধুরীর ছেলে মেহের চৌধুরী ও প্রতিবেশী সুজনের স্ত্রী পলি আক্তারসহ বেশ কয়েকজন এ সাবগবাদিককে বলেন, বুধবার (২১ এপ্রিল) ওই কিশোরীর শারীরিক গঠন দেখে নিশ্চিত হওয়া গেছে সে অন্তঃসত্ত্বা। সে ধর্ষক আজিজুলের নাম বলেছে।

জানতে চাইলে সালিশের মাতব্বর মসরুম ইয়ার চৌধুরী ও সেলিম  সংবাদমাধ্যমকেবলেন, ‘আমরা এ বিষয়টা নিয়ে কাল থেকে আলোচনা করছি। এক পর্যায়ে আজিজুল বিয়ে করার জন্য রাজি হয়েছে। বিয়ে দিলেই বিষয়টা মীমাংসা হয়ে যাবে।’

আরো পড়ুন: শিবগঞ্জে ট্রাক চাপায় অটোভ্যান যাত্রী নিহত

ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী সংবাদিকদের বলেন, দেওয়ান পাড়া গ্রামে ধর্ষণে এক কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে বলে লোকমুখে শুনেছি। তবে এ বিষয়ে এখনো আমাকে কেউ জানায়নি।

এ ঘটনার বিষয়ে মদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আলম বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাইফুল বারী / একটিভ নিউজ