ঢাকা, সোমবার, ১২ মাঘ ১৪২৭, ২৫ জানুয়ারী, ২০২১

Facebook Twitter Youtube

Logo

চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সুদৃষ্টি চান যাযাবর পলাশ

তরুণ গীতিকবি, সুরকার ও গায়ক যাযাবর পলাশ। দুচোখ ভরা তার আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন। আর স্বপ্নকে পূঁজি করেই সঙ্গীতে তার দুরন্ত পথচলা। এক সময় পরিচয় ঘটে গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীতশিক্ষক স্বপন কুমার দাস এর সাথে। প্রথম দেখাতেই নিজের লেখা গান শুনিয়ে গুরুর মন জয় করে নেন। গুরু স্বপন কুমার দাস এর সান্নিধ্যে থেকেই গান লেখা ও সুর করার বিষয়ে

বিনোদন ডেস্ক: একটিভ নিউজ:
প্রকাশিত: শনিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০, ০৯:২৬
চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সুদৃষ্টি চান যাযাবর পলাশ
যাযাবর পলাশ

তরুণ গীতিকবি, সুরকার ও গায়ক যাযাবর পলাশ। দুচোখ ভরা তার আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন। আর স্বপ্নকে পূঁজি করেই সঙ্গীতে তার দুরন্ত পথচলা। এক সময় পরিচয় ঘটে গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীতশিক্ষক স্বপন কুমার দাস এর সাথে। প্রথম দেখাতেই নিজের লেখা গান শুনিয়ে গুরুর মন জয় করে নেন। গুরু স্বপন কুমার দাস এর সান্নিধ্যে থেকেই গান লেখা ও সুর করার বিষয়ে অনেক কিছুই আয়ত্ত করে সে। এরপর গানের নেশায় কাউকে না জানিয়ে বাড়ি ছেড়ে ঢাকায় পালিয়ে যায় সে।

ঢাকা শহরে কোন নিকট আত্মীয় না থাকায় আশ্রয় নেয় এক বন্ধুর কাছে। তার ঐ বন্ধুটি একটি সাউন্ড কোম্পানিতে সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করতো। তাই ঢাকা শহরে নিজেকে টিকিয়ে রাখতে সাউন্ড কোম্পানিতেই সহকারী হিসেবে যোগ দেয়। আর এতে করে খুব কাছে থেকে মঞ্চে বিভিন্ন শিল্পীদের লাইভ পারফরম্যান্স দেখার সুযোগ পায় এবং নিজেকে তৈরী করতে থাকে সে। অবসর সময়ে নিজের লেখা গান নিয়ে বিভিন্ন স্টুডিওতে মিডিয়ার নানান জনের কাছে ছুটতে শুরু করেন এবং নিজের মেধা দিয়ে একসময় সুযোগ পেয়ে যান। মূলত একজন গীতিকার ও সুরকার হিসেবেই মিডিয়া অঙ্গনে পা রাখেন যাযাবর পলাশ।

এরপর পরিচয় ঘটে মেধাবী সঙ্গীতপরিচালক ওয়াহেদ সাহিন এর সাথে।

আর তার হাত ধরেই প্রথম গানে কণ্ঠ দেন যাযাবর পলাশ। ধীরে ধীরে কেবল মিডিয়াতে তার নাম ছড়াতে শুরু করলো। হঠাৎ পারিবারিক একটি সমস্যার কারণে বাবার ডাকে বাড়ি ফিরতে হয় তাকে। আর কিছুদিন পরই তার বাবা রোড এক্সিডেন্ট এ মারা যান। মূহুর্তেই গল্পটা পাল্টে যায় যাযাবর পলাশ এর। বাড়ির বড় ছেলে হওয়ায় সংসারের দায়িত্বগুলো সব পরে তার নিজের কাঁধে। বাবাকে হারিয়ে সংসার নিয়ে একরকম দিশেহারা অবস্থা তৈরি হয় তার।

বাসস্ট্যান্ডে টিকেট কাউন্টারে বুকিং মাস্টার হিসেবে যোগ দেয় সে। একদিন ইনকাম না করলে পরদিন হাড়িতে চাল ওঠেনা অবস্থা সৃষ্টি হয় সংসারে। বাধ্য হয়ে গান গাওয়ার স্বপ্ন মন থেকে বাদ দেয় সে। চলে যায় টানা চার বছর। একসময় ছেলেবেলার বন্ধুদের ও ঢাকায় মিডিয়ার কিছু শুভাকাংক্ষীদের উৎসাহে আবারও গানে ফিরেন যাযাবর পলাশ।

আরো পড়ুন: চলচ্চিত্র পরিচালক অনন্য মামুন ও অভিনেতা শাহীন মৃধাকে গ্রেপ্তার

২০১৬ তে ঈগল মিউজিক এর ব্যানারে ‘হাতটা কি বাড়াবে’ শিরোনামে তার ১ম একক এলবাম বাজারে আসে। এরপর থেকেই কাজের ফাঁকে সময় পেলেই বিভিন্ন শিল্পীর জন্য গান লেখা, সুর করার পাশাপাশি নিজের গাওয়া গানও নিয়মিত প্রকাশ করে যাচ্ছেন তরুন এই গান শ্রমিক।

তার কথা ও সুরে অন্য শিল্পীদের গাওয়া গান অর্ধশত পেরিয়েছে এবং নিজের কণ্ঠে গাওয়া গানের সংখ্যা প্রায় ২২ টি। এর মধ্যে অন্যতম গুলো হচ্ছে, হাতটা কি বাড়াবে, মনের পালকি, দিল দরিয়া, তোর আকাশ জুড়ে, ডুবে আছি, ঘুম এলেই, স্বপ্ন ছুঁয়েছি, মেঘে ঢাকা আকাশসহ আরও কয়েকটি গান। পাশাপাশি যাযাবর  পলাশ এর কথা ও সুরে অন্য শিল্পীদের কণ্ঠে গাওয়া  গানের সংখ্যা প্রায় অর্ধশত। তবে সাংসারিক দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নিয়মিত ঢাকায় থাকতে না পারায় বেশি বেশি কাজ করার সুযোগ হয়না স্বপ্নবাজ এই তরুণের। সর্বশেষ গত ঈদে ‘তোর আকাশ জুড়ে’ শিরোনামে একটি গান প্রকাশ হয় তার। এর পর ‘একটি চাকুরির প্রয়োজন’ প্রকাশ পায়। বেশ প্রসংশাও কুড়িয়েছেন এ গান দিয়ে।

আরো পড়ুন: অপু বিশ্বাসের সঙ্গে প্রেম: যা বললেন বাপ্পী

সঙ্গিতে নিজের পথচলা নিয়ে যাযাবর পলাশ বলেন- গান গেয়ে সবার মন জয় করার স্বপ্ন নিয়েই সঙ্গীতজগতে আসা। ইচ্ছে ছিলো দেশসেরা গায়ক হবো। কিন্তু সেই লালিত স্বপ্নগুলো দিনকেদিন যেন অন্ধকারে হারিয়ে যাচ্ছে। পরিবারের প্রতি দায়িত্ব বেড়ে যাওয়ায় নিজের প্রতি দায়িত্বহীন হয়ে যাচ্ছি হয়তো। তবে আমি আবারও গানে ফিরতে চাই। ফিরতে চাই প্রিয় শহর ঢাকার মাটিতে। চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সুদৃষ্টি পেলে প্লেব্যাকে গান গাওয়ার অদম্য আগ্রহী আমি।

সবার দোয়া চাই, আমি যেন আবারও আমার স্বপ্নের পথে হাঁটতে পারি।



একটিভ নিউজ / সাইফুল বারী
বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

তরুণ গীতিকবি, সুরকার ও গায়ক যাযাবর পলাশ। দুচোখ ভরা তার আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন। আর স্বপ্নকে পূঁজি করেই সঙ্গীতে তার দুরন্ত পথচলা। এক সময় পরিচয় ঘটে গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীতশিক্ষক স্বপন কুমার দাস এর সাথে। প্রথম দেখাতেই নিজের লেখা গান শুনিয়ে গুরুর মন জয় করে নেন। গুরু স্বপন কুমার দাস এর সান্নিধ্যে থেকেই গান লেখা

Active News logo
    Active news app

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ আজিজুর রহমান
সহ-সম্পাদক: বি, এম বাবলুর রহমান
উপদেষ্টা: এ‍্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট
উপদেষ্টা: জাহাঙ্গীর আকন্দ
প‍্যারামাউন্ট হাইটস, পল্টন, ঢাকা-১০০০।
টেলিফোন: ০২-৪৮৯৫৭৯৬৭
মোবাইল: ০১৭১৬-৪৬৫৬১৬
ইমেইল: activenewsoffice@gmail.com