×
  • ঢাকা
  • সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮
Active News 24

‘গুলিবিদ্ধ সিনহা ছটফট করছিলেন, বুকে লাথি মারেন লিয়াকত’


একটিভ নিউজ প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৮, ২০২১, ১২:১৬ পিএম ‘গুলিবিদ্ধ সিনহা ছটফট করছিলেন, বুকে লাথি মারেন লিয়াকত’
সংগৃহীত

বহুল আলোচিত অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা সিনহা মো. রাশেদ হত্যা মামলায় আরও একজন সাক্ষ্য দিয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার জেলা ও দায়রা জজ মো. ইসমাইলের আদালতে মামলার ৮ নম্বর সাক্ষী ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও মসজিদের ইমাম হাফেজ মো. আমিন এ সাক্ষ্য দেন। এ নিয়ে এ মামলায় ৮৩ জন সাক্ষীর মধ্যে পাঁচজন সাক্ষ্য দিলেন।

মেজর (অব.) সিনহা হত্যার প্রত্যক্ষদর্শী ইসমাইল এদিন আদালতকে বলেন, পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকত আলী ছটফট করতে থাকা সিনহার বুকে কয়েকবার লাথি মারেন।  এতে তার মৃত্যু হয়। 

সাক্ষী  হাফেজ মো. আমিন আদালতকে জানান, ঘটনার সময় তিনি পাশের একটি মসজিদ সংযুক্ত মাদ্রাসায় ছাদে ছিলেন। মসজিদ থেকে তল্লাশিচৌকির দূরত্ব ৩০-৪০ কদম ছিল। সেদিন রাতে তল্লাশিচৌকির পাশে পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকত আলীর গুলিতে সিনহা মাটিতে (সড়কে) পড়ে ছটফট করছিলেন। প্রাণ বাঁচানোর জন্য পানির জন্য আকুতি জানাচ্ছিলেন। লিয়াকত আলী সিনহার দিকে গিয়ে বুকে লাথি মারেন কয়েকবার। পা দিয়ে মাথাও চেপে ধরেন।

এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর টেকনাফের দিক থেকে সাদা মাইক্রোবাস নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান প্রদীপ কুমার দাশ (টেকনাফ থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা)। তখনও সিনহা জীবিত ছিলেন এবং ‘পানি পানি’ করছিলেন। ওসি প্রদীপ তখন লাথি মারেন এবং পা দিয়ে গলা চেপে ধরে সিনহার মৃত্যু নিশ্চিত করেন।

বরখাস্ত ওসি প্রদীপ-লিয়াকতসহ এ মামলার ১৫ আসামীদের উপস্থিতিতে এদিন সকাল সোয়া দশটা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত আদালতের কার্যক্রম চলে।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশের প্রিজন ভ্যানে করে মামলার ১৫ আসামিকে আদালতের কাঠগড়ায় তোলা হয়।

রেজাউল করিম / একটিভ নিউজ