ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ মাঘ ১৪২৭, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১

Facebook Twitter Youtube

Logo

বিদেশফেরতদের সহায়তা করা শিখতেও বিদেশ যেতে চান সরকারি কর্মকর্তারা

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ফেরত আসা কর্মীদের সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার জন্য সরকার যে প্রকল্প হাতে নিয়েছে সে প্রকল্পের আওতায় কর্মকর্তাদের বৈদেশিক শিক্ষা সফর বাবদ ৭ কোটি ১৪ লাখ টাকার আবদার করেছে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড। এদিকে পরামর্শক-বৈদেশিক খাতে এই ব্যয়ের প্রয়োজন নেই বলে জানিয়ে দিয়েছে

ডেস্ক: একটিভ নিউজ
প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২১, ১২:৩৯
সংগৃহীত
সংগৃহীত

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ফেরত আসা কর্মীদের সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার জন্য সরকার যে প্রকল্প হাতে নিয়েছে সে প্রকল্পের আওতায় কর্মকর্তাদের বৈদেশিক শিক্ষা সফর বাবদ ৭ কোটি ১৪ লাখ টাকার আবদার করেছে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড।

এদিকে পরামর্শক-বৈদেশিক খাতে এই ব্যয়ের প্রয়োজন নেই বলে জানিয়ে দিয়েছে পরিকল্পনা কমিশন। তারসাথে করোনাকালে বিদেশ ভ্রমণ না করে সেই টাকা বিদেশফেরতদের দেওয়ার পরামর্শও দেওয়া হয়েছে।  

ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের প্রস্তাবিত প্রকল্পে পরিকল্পনা কমিশন কিছু মতামত তুলে ধরে। প্রকল্প নিয়ে বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) পরিকল্পনা কমিশনে আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো বিভাগের সদস্য (সচিব) মোসাম্মৎ নাসিমা বেগমের সভাপতিত্বে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হবে।

আরো পড়ুন: জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা কাল 

এ বিষয়ে পরিকল্পনা কমিশনের দাবি, প্রকল্পে বৈদেশিক শিক্ষা সফর কতজন করবেন, কতদিন করবেন, এই বিষয়ে কোনো কিছু উল্লেখ করা হয়নি।

আর এই প্রকল্পের আওতায় বিদেশ সফরের প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না। তাই এ প্রস্তাব বাদ দিয়ে সমুদয় অর্থ উপকারভোগীদের ক্যাশ ইনসেনটিভ হিসেবে সংযোজন করা যেতে পারে।

জানতে চাইলে পরিকল্পনা কমিশনের জনসংখ্যা পরিকল্পনা ও সমন্বয় উইংয়ের উপপ্রধান মো. হানিফ উদ্দীন ৎবলেন, প্রত্যাগত অভিবাসী কর্মীদের পুনর্বাসনে বৈদেশিক শিক্ষা সফর বাবদ ৭ কোটি ১৪ লাখ টাকার প্রস্তাব করা হয়েছে। আমরা বলেছি, করোনাকালে বিদেশ ভ্রমণ বা বৈদেশিক শিক্ষা সফর দরকার নেই। বরং এই টাকা বিদেশফেরত শ্রমকিদের ইনসেনটিভ দেওয়া যেতে পারে। এতে করে তারা অনেক উপকৃত হবেন। প্রকল্পে পরামর্শ খাতে অনেক ব্যয় চাওয়া হয়েছে এটার প্রয়োজন আছে বলে আমরা মনে করি না।

সংশ্লিষ্টদের নিয়ে এই বিষয়ে আলোচনা করবো।  

চলতি সময় থেকে ২০২৫ সালের নভেম্বর মেয়াদে ৪৩০ কোটি ৫২ লাখ টাকায় ‘প্রত্যাগত অভিবাসী কর্মীদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে অনানুষ্ঠানিক খাতে কর্মসংস্থান সৃজনে সহায়ক প্রকল্প’ বাস্তবায়ন করা হবে। প্রকল্পের আওতায় ৪২৫ কোটি টাকা ঋণ দেবে বিশ্বব্যাংক।  

আরো পড়ুন: মামলায় সাহায্যের টোপ দিয়ে বাদীর শ্লীলতাহানি, ম্যাজিস্ট্রেট কনক বড়ুয়াকে ছুটি

এ বিষয়ে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড সূত্র জানায়, প্রকল্পের মাধ্যমে বিদেশ থেকে ফেরত আসা কর্মীদের তালিকা তৈরি করা হবে। বাছাই করা কর্মীদের ওরিয়েন্টেশান ও কাউন্সেলিং করে এককালীন ক্যাশ ইনসেনটিভ দেওয়া হবে, যেন বিদেশফেরত শ্রমিকেরা নিজেদের যোগ্যতা ও দক্ষতা অনুযায়ী সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে উপযুক্ত চাকরি অথবা ব্যবসায় সম্পৃক্ত হতে পারেন। তাদের আর্থিক ও অন্যান্য সহযোগিতা দেওয়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন এবং ঋণ সহায়তা পেতে সহযোগিতা করার ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

জানা যায়, প্রকল্পটি ৮টি বিভাগের ৩০টি উপজেলায় বাস্তবায়িত হবে।

বিশ্বের ১৭৮টির অধিক দেশে বাংলাদেশের প্রায় ১ কোটি ২০ লাখ কর্মী বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করছেন। কোভিড-১৯ মহামারির কারণে বিদেশে কর্মরত কর্মীরা দেশে ফিরে আসতে বাধ্য হচ্ছেন। দেশে এসে কাজ না পেয়ে বরণ করতে হচ্ছে বেকারত্ব। তাই এসব ফেরত আসা কর্মীদের সমাজে পুনর্বাসনে সহায়তা করার লক্ষ্যেই প্রকল্পটি নেওয়া হচ্ছে। অথচ প্রকল্পের নানা খাতের ব্যয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে পরিকল্পনা কমিশন।



একটিভ নিউজ / এস কে
×
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ফেরত আসা কর্মীদের সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার জন্য সরকার যে প্রকল্প হাতে নিয়েছে সে প্রকল্পের আওতায় কর্মকর্তাদের বৈদেশিক শিক্ষা সফর বাবদ ৭ কোটি ১৪ লাখ টাকার আবদার করেছে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড। এদিকে পরামর্শক-বৈদেশিক খাতে এই ব্যয়ের প্রয়োজন নেই বলে

Active News logo
    Active news app

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ আজিজুর রহমান
সহ-সম্পাদক: বি, এম বাবলুর রহমান
উপদেষ্টা: এ‍্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট
উপদেষ্টা: জাহাঙ্গীর আকন্দ
প‍্যারামাউন্ট হাইটস, পল্টন, ঢাকা-১০০০।
টেলিফোন: ০২-৪৮৯৫৭৯৬৭
মোবাইল: ০১৭১৬-৪৬৫৬১৬
ইমেইল: activenewsoffice@gmail.com