×
  • ঢাকা
  • রবিবার, ১৬ মে, ২০২১, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

আসছে আরো কঠোর লকডাউন!


একটিভ নিউজ প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২১, ০১:০৭ পিএম আসছে আরো কঠোর লকডাউন!

দিন দিন বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমণ। বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার। তাই করোনা নিয়ন্ত্রণে সরকার গঠিত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি টানা দুই সপ্তাহের লকডাউন দেওয়ার সুপারিশ করেছে। এ বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, কমপক্ষে তিন সপ্তাহের লকডাউন প্রয়োজন। তাই লকডাউন আপাতত আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে সরকার।

এ সংক্রান্তে আগামী ১৯ এপ্রিল সোমবার একটি শীর্ষ পর্যায়ের সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেই সভার মতামত নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন সাপেক্ষে চলমান লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়িয়ে ২২ এপ্রিল থেকে আগামী ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত চলতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

এদিকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, চলমান ৮ দিনের লকডাউনের মেয়াদ আগামী ২১ এপ্রিল রাত ১২ টায় শেষ হতে চলেছে।

আরো পড়ুন: আরও এক সপ্তাহ বাড়তে পারে লকডাউন

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, বিশেষজ্ঞ কারিগরি কমিটি ও সমাজ সচেতন মহল থেকে লকডাউন বাড়ানোর পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেওয়ার এখতিয়ার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পাওয়া গেলে আগামী ২০ এপ্রিল তা জানা যাবে।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন অতিরিক্ত সচিব নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, করোনার এমন পরিস্থিতিতে লকডাউনের মেয়াদ আরও কিছুদিন বাড়ানোর চিন্তাভাবনা চলছে। কারণ সংক্রমণের হার তো কমছে না। বাড়ছে মৃত্যুর হারও। মাঝপথে সবকিছু খুলে দিলে সরকারের সব উদ্যোগ ভেস্তে যাবে। চরম হুমকিতে পড়বে মানুষের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা।

আরো পড়ুন: বর্তমান সময়কে ‘লুটপাটের যুগ’ বললেন পরিকল্পনামন্ত্রী

অন্যদিকে এ বিষয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান জানিয়েছেন, লকডাউন বাড়ছে কিনা তা প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার। বাস্তবতা বিবেচনায় নিয়ে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও সরকার গঠিত কারিগরি পরামর্শক কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত দেবেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত মার্চ মাস থেকে করোনার সংক্রমণ আবারও বাড়ছে। পরপর গত দুদিন করোনায় সংক্রমিত হয়ে ১০১ জন করে মারা গেছেন। এমন পরিস্থিতিতে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকার ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ দিয়ে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ শুরুর ঘোষণা দেয়। বর্তমানে লকডাউনে সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।

রেজাউল করিম / একটিভ নিউজ